আপনার ভাষা বদলান
Tap the Share button in Safari's menu bar
Tap the Add to Home Screen icon to install app
ShareChat
যোগী রাজ্যে ফের খুন পুলিশকর্মী। এবার ঘটনাস্থল গাজিপুর। শনিবার দুপুরে জেলার কাথুয়া ব্রিজের কাছে উন্মত্ত জনতার ছোঁড়া পাথরের আঘাতে এক পুলিশ কনস্টেবলের মৃত্যু হয়েছে। এক মাসের মধ্যে উত্তরপ্রদেশে দুষ্কৃতীদের হাতে এ নিয়ে পরপর দু'জন পুলিশকর্মী খুন হলেন। নিহত পুলিশকর্মীর নাম সুরেশ বৎস্য। করিমুদ্দিনপুর থানায় কর্মরত ছিলেন তিনি। আইটিআই গ্রাউন্ডে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জনসভায় ডিউটি শেষে সহকর্মীদের সঙ্গে থানায় ফেরার পথে আক্রান্ত হন এই পুলিশকর্মী। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত মোট ৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ। অন্যদের সন্ধানে তল্লাশি চলছে বলে গাজিপুরের জেলাশাসক কে বালাজি জানিয়েছেন। দিন কয়েক আগেই উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহর জেলায় উন্মত্ত জনতার হাতে সুবোধ কুমার সিং নামে এক পুলিশকর্মী খুন হয়েছিলেন। তার রেশ কাটার আগেই গাজিপুরের ঘটনা ঘটল।গোটা ঘটনায় গভীর শোকপ্রকাশ করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। মৃত পুলিশকর্মীর পরিবারের জন্য মোট ৫০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণের কথা ঘোষণা করেছেন তিনি।জানা গিয়েছে, বড়বাবুর নেতৃত্বে করিমুদ্দিনপুর থানা থেকে মোট ৬ জন পুলিশকর্মী প্রধানমন্ত্রীর সভায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য গিয়েছিলেন। থানায় ফেরার পথে কথওয়া ব্রিজের কাছে নিষাদদের জন্য সংরক্ষণের দাবিতে নিষাদ পার্টির লোকজন পথ অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন। পুলিশকর্মীরা বিক্ষোভকারীদের সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলে আন্দোলন হিংসাত্মক রূপ নেয়। উন্মত্ত জনতার হাত থেকে রক্ষা পাননি পুলিশকর্মীরাও। এতে গুরুতর জখম হন সুরেশ বৎস্য।বিশাল পুলিশ বাহিনী ঘটনাস্থলে পৌঁছনোর আগেই বিক্ষোভকারীরা এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়। আহত পুলিশকর্মীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।
#

খবর 🗞

খবর 🗞 - + P - THE UPDATE NEWS - 2 . . . a | যােগী রাজ্যে ফের খুন পুলিশকর্মী৷ এবার ঘটনাস্থল । | # গাজিপুর । শনিবার দুপুরে জেলার কাথুয়া ব্রিজের কাছে উন্মত্ত জনতার ছোঁড়া পাথরের আঘাতে এক পুলিশ কনস্টেবল সুরেশ ভাটের মৃত্যু হয়েছে৷ এক মাসের মধ্যে উত্তরপ্রদেশে দুষ্কৃতীদের হাতে এ নিয়ে পরপর দু ' জন পুলিশকর্মী খুন হলেন বুলন্দশহরের পরে গাজিপুর , যােগী রাজ্যে ফের খুন পুলিশ - Eisamay - ShareChat
255 জন দেখলো
4 মাস আগে
অন্য কোথাও শেয়ার করুন
Facebook
WhatsApp
লিংক কপি করুন
মুছে ফেলুন
Embed
আমি এই পোস্ট এর বিরুদ্ধে, কারণ...
Embed Post