@parna767657
@parna767657

🌿🌹🍁SUPARNA🍁 🌹🌿

যতনে হৃদয়ে রেখো, আদরিনী শ্যামা মাকে.. মন তুই দেখ আ

#🙏 শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব শুভ আবির্ভাব দিবস 🙏 আজ সেই ঐতিহাসিক দিন......................... আজকের দিনটাতে অর্থাৎ ১৮ই ফেব্রুয়ারীতে বাংলার আধ্যাত্মিক ভাবান্দোলনে দু'জন নক্ষত্রের আবির্ভাব ঘটেছিল- যারা শুধু যে আধ্যাত্মিক ভাবপ্রবাহের সঞ্চালন করেছিলেন তা নয়, তারা বদলে ফেলেছিলেন সমসাময়িক যুগের গোটা সংস্কৃতি ও মানুষের চিন্তাধারা, এমনকি আজও তাদের জীবন ও শিক্ষা চর্চিত হচ্ছে দেশে দেশে। বিশেষত হিন্দুর ধর্ম জীবনের বিরাট অংশজুড়ে এঁদের অবস্থান। একজন মধ্যযুগে ইসলামি আগ্রাসনে বিপর্যস্ত হিন্দুর জন্য ত্রাতা হয়েছিলেন। ব্রাহ্মণ্যবাদ ও নানান অপপ্রথা থেকে মুক্তি দিয়েছিলেন ব্যাপক ভক্তি আন্দোলনের সূচনা করে। যার হৃদয় ছিল প্রেমে পরিপূর্ণ। যার জন্য, এমনকি হুমায়ুন আজাদের মত কট্টর আধ্যাত্মিকতা-অবিশ্বাসী মানুষকেও লিখতে হয়েছিল- 'প্রেম একবারই মানবমূর্তি ধরেছিল পৃথিবীতে শ্রীচৈতন্য রূপে'! শ্রীচৈতন্যদেব জন্মেছিলেন ১৪৮৬ সনের ১৮ই ফেব্রুয়ারী। ন্যায়শাস্ত্রের তুখোড় পন্ডিত, অদ্বৈত মতের সন্ন্যাসী হয়েও তিনি দ্বৈত পথের সাধনাকেই প্রদীপ্ত করেছিলেন। অপরজন? উনবিংশ শতাব্দীর বাঙালী নবজাগরণের ইতিহাসের একটা প্রখর দ্যুতিময় নক্ষত্র, স্বদেশে বিদেশে নন্দিত। কথায় কথায় গল্প বাঁধতে পারতেন আর সেইসব গল্প দিয়ে কত জটিল তত্ত্বকথাকে মানুষের মাঝে সরল করে দিতেন। কত শত উপমা। রোঁমারোঁলা বলেছিলেন- 'এগুলো জগতের উপমা সাহিত্যের আকর'। প্রমথনাথ বিশী 'উপমা কালিদাসস্য' উল্টে বলেছিলেন- 'উপমা রামকৃষ্ণস্য'! হ্যাঁ রামকৃষ্ণদেবের কথা বলছি। প্রায়-অশিক্ষিত দক্ষিণেশ্বরের এই ক্ষ্যাপা রাঢ় অঞ্চলের বামুনের কাছে বসে তত্ত্বকথা শুনতো কোলকাতার বিদ্বৎ সমাজ। হিন্দু ধর্ম ও সংস্কৃতি যখন ইংরেজের প্রভাবে পাশ্চাত্যের গ্রাসে তখন তিনিই এসেছিলেন প্রাচীন ভারতের বার্তা নিয়ে। আমাদের একজন 'বিবেকানন্দ' উপহার দিয়েছিলেন। শুনিয়েছিলেন 'যত মত তত পথ' এর মত উদার বাণী। শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণও জন্মেছিলেন ১৮ই ফেব্রুয়ারীতে! তবে সেটা ১৮৩৬ সালে। এই দুই ভাববাদী বাঙালী দখল করে আছেন হিন্দুর ঠাকুরঘরের উপাসনার বেদী যুগযুগ ধরে। দু'জনই মুগ্ধ করে রেখেছেন হাজার হাজার বাঙালীর বিরাট বিরাট মাথাগুলোকেও! তাঁদের প্রেম ও করুণা, তাদের শিক্ষা ও সাধনা- যা আজও নীরবে প্লাবিত করে চলেছে আমাদের সমাজ, আমাদের দিন ও রাত, আমাদের প্রজন্মের পর প্রজন্ম। এই দুই মহামানবকে আজ এই শুভদিনে প্রণাম জানাই। রামকৃষ্ণ শরণম্ কৃপা হি কেবলম্!!! (রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনে শ্রীশ্রীঠাকুর-শ্রীশ্রীমা এবং স্বামীজী মহারাজ সহ শ্রীশ্রীঠাকুরের সকল পার্ষদদের জন্মতিথি অনুসারে উৎসব পালিত হয়। জন্মদিন পালিত হয় না, তবু আজকের এই বিশেষদিনে শ্রীশ্রীচৈতন্যদেব ও শ্রীশ্রীঠাকুরের সম্বন্ধে মনের ভাব প্রকাশ করার একটি অভিপ্রায়বোধ প্রশমিত করতে না পেরে পোস্টটি করলাম।) (সাবর্ণ)
#

🙏 শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব শুভ আবির্ভাব দিবস 🙏

🙏 শ্রী শ্রী রামকৃষ্ণ পরমহংস দেব শুভ আবির্ভাব দিবস 🙏 - * শ্রীশ্রীরামকুও 1 “ সত্যি কথা বলার সময় খুবই | ২ নম্র এবং একাগ্র হওয়া উচিত ? কারণ সত্যের মাধ্যমে ভগবানকে । অনুভব করা যেতে পারে ” - ShareChat
316 জন দেখলো
2 ঘন্টা আগে
অন্য কোথাও শেয়ার করুন
Facebook
WhatsApp
লিংক কপি করুন
মুছে ফেলুন
Embed
আমি এই পোস্ট এর বিরুদ্ধে, কারণ...
Embed Post
অন্য কোথাও শেয়ার করুন
Facebook
WhatsApp
আন-ফলো
লিংক কপি করুন
অভিযোগ
ব্লক
আমি অভিযোগ করতে চাইছি কারন...