@subir103
@subir103

Subir Saha

"বন্ধুত্ব শুধু একটা শব্দ নয় , শুধু একটা সম্পর্ক নয় ।এটা একটা নীরব প্রতিশ্রুতি: ' আমি ছিলাম, আমি আছি এবং আমি থাকবো' ..."

💗মানুষের দরবারে আপনাদের গৌরাঙ্গ💗 বাংলার সেই উত্তাল সময়ে আমার কলকাতা ছাড়া হওয়াটা রাজনৈতিক কারণে অবধারিত ছিল। ছোটবেলা থেকেই শখ বা নেশা যাই বলা হোক না কেন সিনেমায় অভিনয় করাটা আমার কাছে এক স্বপ্ন ছিল । তাই অধুনা মুম্বাই, সেদিনের বোম্বেতে চলে যাওয়াটা ঘটে গিয়েছিল অনিবার্য ভাবেই। চেনাজানা বলতে সেরকমভাবে বোম্বেতে আমার কেউ ছিলনা । বলতে গেলে নিম্নমধ্যবিত্ত, অনেকগুলো ভাই বোনের পরিবারে জন্মেছিলাম । অর্থবল কোনকালেই দেখিনি । বাবা মা বাধা দিয়েছিলেন, কিন্তু আমার জীবনের ঝুঁকির কথা ভেবে পরে একরকম রাজী করিয়ে নিয়েছিলাম । পুনের ফিল্ম ইন্সটিউটে অ্যাকটিং শিখতে ভর্তি হতে পারাটা আমার ভাগ্যের সহায় বলা যেতেই পারে। সেইসময়ে বাল থ্যাকারে সাহেবের সাহচর্য পাওয়াটাও ওই ভাগ্যেরই কৃপা ছিল। আমার বোম্বের সেইদিনগুলো ভীষণরকম কঠিন ছিল। একটি বাঙালী নিম্নমধ্যবিত্ত পরিবার থেকে উঠে আসা যুবকের পক্ষে বলিউডের নায়ক হতে চাওয়াটা নিতান্তই অলীক কল্পনা বলা যেতেই পারে।ফিল্ম ইনস্টিউটের প্রথম দিকের দিনগুলোতে আমায় নিয়ে অন্য সব ছাত্রছাত্রীরা রীতিমত মজা মস্করাই করত । দাঁতে দাঁত চেপে দিনগুলো পার করেছিলাম। ওখানে পড়তে পড়তেই তখন মৃণাল স্যরের নজরে পড়েছিলাম। পাশ করার পর ওনার কাছেই প্রথম সুযোগ পেয়েছিলাম। #"মৃগয়া" ছবিটি আমায় এনে দিয়েছিল সুঅভিনেতার তকমা আর জাতীয় পুরস্কার। ওটা বাণিজ্যিক ছবি ছিলনা তাই বোম্বেতে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য শুরু করলাম কাজ পাবার লড়াই। প্রযোজকদের আর পরিচালকদের দরজায় ঘুরতাম, পেট চালাবার জন্য শুরু করে দিয়েছিলাম বিয়ে বাড়িতে নাচ দেখিয়ে পয়সা রোজগার । খুচখাচ্ এক্সট্রা রোলে কাজ পেতাম, যা হয় তাই করেই পেটটা চালাতাম। মেসবাড়িতে দক্ষিণ ভারতীয়দের সাথে বোম্বে শহরে সেদিন আমিও ছিলাম এক যোদ্ধা। খুব ধীর কদমে সাফল্য ধরা দিতে থাকলো। বিগ্রেড, সিগ্রেড ছবিতে সেসময়ে অল্প পয়সার প্রযোজকরা আমায় নায়ক করে ছবি বানাতে লাগল। ধীরে ধীরে হয়ে উঠলাম গৌরাঙ্গ থেকে মিঠুন চক্রবর্তী । তখনো বোম্বের বুকে বাড়ি বা ফ্ল্যাট কেনার সঙ্গতি আসেনি। দুটো কারণে বুদ্ধি করে একটা সেকেন্ড হ্যান্ড গাড়ি কিনে ফেলেছিলাম, এক স্টুডিও যাওয়ার সময়ে গাড়িতে করে নায়কের পৌঁছানোটা বিশেষ স্ট্যটাস সিম্বল। তারচেয়েও বড় কারণ রাত্রে কোন পার্কে গাড়িটা ঢুকিয়ে দিয়ে সেই গাড়ির ভিতরেই ড্রাইভার সেজে রাতটা কাটিয়ে দেওয়া। এর আগে অবশ্য বহুবার পার্কের বেঞ্চেও রাত কাটিয়েছি। সেইসময়েই হিন্দিতে "সুরক্ষা" "খোয়াব" "হীরাসত্" ইত্যাদি ছবিগুলো করছি পাশাপাশি বাংলায় "বাঁশরী" "পাহাড়ি ফুল" এর মত ছবিগুলোও ছাড়তাম না। মাতৃভাষায় অভিনয় করার নেশা আমার বরাবরই। প্রযোজক বি. সুভাষ এর "ডিস্কো ড্যান্সার" ছবিটা সুপার ডুপার হিট হয়ে যেতেই ভাগ্যের চাকাটা ঘুরে গিয়েছিল। ভাল ভাল পরিচালক যাঁরা আমার থেকে মুখ ফিরিয়ে রেখেছিলেন তাঁরা আস্তে আস্তে আমায় কাজ দিতে থাকলেন। ড্যান্সার হিরো হিসেবে আমার খ্যাতি তখন মধ্যগগনে। সুপারস্টার হয়ে বছরে আট থেকে দশটা ছবি রিলিজ হত সেইসময়ে। ভালর পাশাপাশি বহু মানুষের মন রাখতে আর টাকার প্রয়োজনে অনেক আজেবাজে ছবিতে কাজ করে গেছি। তবে ভাল পরিচালকেরা ডাকলে কোন কিছু না ভেবেই এক পায়ে খাড়া হয়ে তাঁদের কাজ ধরে নিতাম। সেই কারণেই "স্বামী বিবেকানন্দ" "তাহাদের কথা" "তিতলি" এরকম বহু ছবিতে আমার কাজ আমায় এনে দিয়েছিল আবার দুটো জাতীয় পুরস্কার। জীবনে বহুরকম চরিত্রে অভিনয় করেছি, অনেক নাম হয়েছে পুরস্কার এসেছে। মানুষের জন্য কিছু করতে পারার খিদেটাই আমায় তাড়িয়ে নিয়ে ফিরত, তাই ফিল্মের টেকনিশিয়ানদের ইউনিয়নের সভাপতি পদে বহুবার নির্বাচিত হয়েছি। শেষ বয়সে এসে সেই মানুষের জন্য কিছু করতে চাওয়ার তাগিদটাই একটা ভুল সিদ্ধান্তর দিকে আমায় ঠেলে দিলো। আমি রাজনীতির ময়দানে আসি এটা আমার দর্শকরা কখনোই চাননি। আমি তাঁদের সেই রায় কে উপেক্ষা করে পঃবঙ্গের শাসকদলের রাজনীতির পাঁকে পা দিয়েই দিলাম আর যার ফলস্বরূপ পেলাম জনমানসে আমার প্রতি অবিশ্বাসের সুর। এতদিনের তিলতিল করে অর্জন করা সুনাম একলহমায় আছড়ে ভেঙে চুরমার । খানখান হয়ে টুকরো টুকরো হয়ে যেন ছড়িয়ে পড়েছে আসমুদ্র হিমাচল...! আমি কেমন যেন নিজেই নিজেকে ক্ষমা করতে না পেরে গুটিয়ে গেলাম। শরীরটাও আর সাথ দিচ্ছে না। জীবনের শেষপর্বে এসে কোথায় যেন আমার সবকিছুর তাল কেটে গেল! মানুষের সামনে আসতে, মুখ দেখাতেই কেমন যেন লজ্জা করে, দ্বিধা বোধ হয় । হয়ত আপনারা আজও আমায় তেমনিই ভালবাসেন, কিন্তু আমার নিজের মনে হয় আমি কি আপনাদের ভালবাসার যোগ্য নিজেকে রাখতে পেরেছি শেষ পর্যন্ত্য! কিছু না করেই তো মানুষের সরল চোখে হয়ে গেছি যেন দোষী...! এর মাঝেই একটি চরম উপলব্ধি হয়েছে, সক্রেটিসের সেই আপ্তবাক্য.. "সব দুর্বৃত্তের শেষ আশ্রয়স্থল হল রাজনীতির আঙিনা...." যে পথ আমার জন্য কখনই ছিলনা.....!!!
#

🕺 অভিনেতা অভিনেত্রী 👸

🕺 অভিনেতা অভিনেত্রী 👸 - ShareChat
280 views
9 days ago
Share on other apps
Facebook
WhatsApp
Copy Link
Delete
Embed
I want to report this post because this post is...
Embed Post
Share on other apps
Facebook
WhatsApp
Unfollow
Copy Link
Report
Block
I want to report because