রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
#রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
দিল্লিতে বিক্ষোভ : গ্রেফতার রাহুল গান্ধী দিল্লিতে সিবিআই দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ সিবিআই প্রধান অলোক বর্মাকে সরানোর জেরে কেন্দ্রের সঙ্গে লড়াইয়ে রাস্তায় নামলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। বৃহস্পতিবার তিনি বিশাল মিছিল নিয়ে সিবিআই কার্যালয়ে গিয়ে হাজির হন। পাশাপাশি লখনউ, মুম্বাই, তেলেঙ্গানা, চণ্ডীগড়ে সিবিআই কার্যালয়ে গিয়ে তুমুল বিক্ষোভ দেখায় কংগ্রেস সমর্থকরা। শুক্রবার সমর্থকদের নিয়ে দিল্লির দায়াল সিং কলেজ থেকে লোধি রোডে সিবিআই কার্যালয়ে যান রাহুল। সেখানে আগে থেকে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা রাখা হয়েছিল। কংগ্রেসের সঙ্গে ছিল আপ, তৃণমূল, সিপিএম সমর্থকরা। সিবিআই সদর দপ্তর মুখে কংগ্রেস সমর্থকদের আটক করে পুলিশ। বেশ কিছু বিক্ষোভকারীকে গাড়িতে তোলা হয়। গ্রেফতার বরণ করেন রাহুল। তাকে লোধি রোড থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এদিন বিক্ষোভ সমাবেশে রাহুল বলেন, দেশের অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করেছেন নরেন্দ্র মোদী। তা সে সিবিআই হোক বা নির্বাচন কমিশন। এর জন্যই আমরা বলি দেশের চৌকিদার চোর। উনি অনিল আম্বানির পকেটে ৩০ হাজার কোটি টাকা ঢুকিয়ে দিয়েছেন। কংগ্রেস চৌকিদারকে চুরি করতে দেব না। সব বিরোধীরাও তা করতে দেবে না। উল্লেখ্য, শুক্রবার সুপ্রিম কোর্ট সেন্ট্রাল ভিজিল্যান্স কমিশনকে জানিয়ে দেয় আগামী ২ সপ্তাহের মধ্যে সিবিআই প্রধান অলোক বর্মা ও তার ডেপুটি রাকেশ আস্থানার বিরুদ্ধে তদন্ত শেষ করতে হবে। এরা দু’জনেই একে অন্যের বিরুদ্ধে ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ এনেছেন। তাও আবার একজন ব্যবসায়ীর কাছ থেকে। ওই অভিযোগ ওঠার পরই গত বুধবার অলোক বর্মাকে ছুটিতে পাঠিয়ে দেয় কেন্দ্র। এ দিকে অলোক বর্মার অনুপস্থিতিতে অন্তবর্তীকালীন দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে এন নাগেশ্বর রাওকে। তবে আজ সুপ্রিম কোর্ট জানিয়ে দিয়েছে, নাগেশ্বর কোনো বড় নীতিগত সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না। শুধুমাত্র রুটিন কাজ করতে পারবেন। আগামী ১২ দিন তিনি যেসব সিদ্ধান্ত নেবেন তার তালিকা আদালতে দিতে হবে। #রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
অলোক বর্মাকে পদে ফেরানোর দাবিতে সিবিআই কার্য্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ দেখিয়ে গ্রেফতার হলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধি। যদিও পরে তাঁকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। গ্রেফতারের পর রাহুলকে লোধি কলোনি থানায় রাখা হয়েছিল। সিবিআই ডিরেক্টরের পদে অলোক বর্মাকেই ফিরিয়ে আনতে হবে। বর্মা রাফাল ‘দুর্নীতি’র তদন্তে অগ্রসর হয়েছিলেন বলেই তাঁকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দিয়েছে মোদী সরকার। মূলত এইসব অভিযোগ ও দাবি করে নয়াদিল্লিতে সিবিআই-এর প্রধান কার্য্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ দেখায় কংগ্রেস। পরেলোধি ছাড়া পেয়ে বেরিয়ে সংবাদ সংস্থা এএনআই-কে রাহুল বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দৌড়তে বা লুকাতে পারেন, কিন্তু শেষ পর্যন্ত সত্য সামনে আসবেই। সিবিআই ডিরেক্টরকে অপসারণ করে লাভ হবে না।’ #রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
গ্রেফতার হয়েছেন ভারতের বিরোধী দলীয় নেতা রাহুল গান্ধী। মধ্যপ্রদেশের মন্দশৌরে তাকে যেতে দেয়া হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছিল প্রশাসন। সদলবলে জোর করে সেখানে ঢোকার চেষ্টা করে মধ্যপ্রদেশ সীমানাতেই আটক হন কংগ্রেস সহ-সভাপতি। গ্রেফতার হওয়ার সময় রাহুল তীব্র আক্রমণ করেন মধ্যপ্রদেশ সরকার, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও। মন্দশৌরে কৃষকের মৃত্যুর জন্য মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান ও মোদি, দুজনেই দায়ী বলে অভিযোগ করেন। বলেন, বড়লোকদের দেড় লক্ষ কোটি রুপি ঋণ মওকুব করতে পারেন, কিন্তু চাষিদেরটা করতে পারেন না মোদি। চাষীদের ফসলের ন্যয্য দর, বোনাস দিতে পারেন না, ক্ষতিপূরণও দিতে পারেন না, দিতে পারেন শুধু বুলেট।রাহুলের সঙ্গে গ্রেফতার হন রাজস্থান কংগ্রেস সভাপতি সচিন পাইলট, মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস বিধায়ক জয়বর্ধন সিংসহ কয়েকশ কংগ্রেস কর্মী। তাদের নিয়ে যাওয়া হয় একটি সিমেন্ট কোম্পানির অতিথিশালায়। https://sharechat.com/post/Oamn0OO?referrer=otherShare #রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
দিল্লিতে গ্রেফতার রাহুল গান্ধী সহ কংগ্রেসী নেতারা https://sharechat.com/post/nk8Pjea?referrer=otherShare #রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
দিল্লিতে গ্রেফতার রাহুল গান্ধী সহ কংগ্রেসী নেতারা মোদী সরকারের বিরুদ্ধে পথে নামলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। শুক্রবার দিল্লির সিবিআই দফতরের সামনে তাঁর নেতৃত্বে কংগ্রেস নামে রাস্তায়। সিবিআই অধিকর্তা অলোক বর্মার অপসারণের প্রতিবাদে এই বিক্ষোভ। এদিন সকালে রাহুলের নেতৃত্বে কংগ্রেসের মিছিল রওনা দেয় সিবিআই সদর দফতরের দিকে। সিবিআইয়ের সদর দফতর থেকে ৫০০ মিটার দূরে কংগ্রেসের মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। পরে লোধি রোড পুলিশ থানায় গিয়ে প্রতীকী গ্রেফতার বরণ করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। কংগ্রেস সভাপতির মতোই প্রতীকী গ্রেফতার বরণ করেন অশোক গেহলট, প্রমোদ তিওয়ারি ও আহমেদ প্যাটেল।এদিন ট্যুইট করে কংগ্রেস সভাপতির গ্রেফতারের খবর দেন দলীয় নেতা রণদীপ সূরযেওয়াল। তিনি লেখেন, সিবিআই সদর দফতরের বাইরে রাহুল গান্ধী সহ যেসব কংগ্রেস নেতারা বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। https://sharechat.com/post/DydBkVP?referrer=otherShare #রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
গ্রেফতার হয়েছেন ভারতের বিরোধী দলীয় নেতা রাহুল গান্ধী। মধ্যপ্রদেশের মন্দশৌরে তাকে যেতে দেয়া হবে না বলে জানিয়ে দিয়েছিল প্রশাসন। সদলবলে জোর করে সেখানে ঢোকার চেষ্টা করে মধ্যপ্রদেশ সীমানাতেই আটক হন কংগ্রেস সহ-সভাপতি। গ্রেফতার হওয়ার সময় রাহুল তীব্র আক্রমণ করেন মধ্যপ্রদেশ সরকার, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকেও। মন্দশৌরে কৃষকের মৃত্যুর জন্য মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান ও মোদি, দুজনেই দায়ী বলে অভিযোগ করেন। বলেন, বড়লোকদের দেড় লক্ষ কোটি রুপি ঋণ মওকুব করতে পারেন, কিন্তু চাষিদেরটা করতে পারেন না মোদি। চাষীদের ফসলের ন্যয্য দর, বোনাস দিতে পারেন না, ক্ষতিপূরণও দিতে পারেন না, দিতে পারেন শুধু বুলেট।রাহুলের সঙ্গে গ্রেফতার হন রাজস্থান কংগ্রেস সভাপতি সচিন পাইলট, মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস বিধায়ক জয়বর্ধন সিংসহ কয়েকশ কংগ্রেস কর্মী। তাদের নিয়ে যাওয়া হয় একটি সিমেন্ট কোম্পানির অতিথিশালায়। #রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
দিল্লিতে গ্রেফতার রাহুল গান্ধী সহ কংগ্রেসী নেতারা #রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
Sh. Rahul Gandhi & other leaders arrested #রাহুল গান্ধী গ্রেফতার
দিল্লিতে গ্রেফতার রাহুল গান্ধী সহ কংগ্রেসী নেতারা মোদী সরকারের বিরুদ্ধে পথে নামলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। শুক্রবার দিল্লির সিবিআই দফতরের সামনে তাঁর নেতৃত্বে কংগ্রেস নামে রাস্তায়। সিবিআই অধিকর্তা অলোক বর্মার অপসারণের প্রতিবাদে এই বিক্ষোভ। এদিন সকালে রাহুলের নেতৃত্বে কংগ্রেসের মিছিল রওনা দেয় সিবিআই সদর দফতরের দিকে। সিবিআইয়ের সদর দফতর থেকে ৫০০ মিটার দূরে কংগ্রেসের মিছিল আটকে দেয় পুলিশ। পরে লোধি রোড পুলিশ থানায় গিয়ে প্রতীকী গ্রেফতার বরণ করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। কংগ্রেস সভাপতির মতোই প্রতীকী গ্রেফতার বরণ করেন অশোক গেহলট, প্রমোদ তিওয়ারি ও আহমেদ প্যাটেল।এদিন ট্যুইট করে কংগ্রেস সভাপতির গ্রেফতারের খবর দেন দলীয় নেতা রণদীপ সূরযেওয়াল। তিনি লেখেন, সিবিআই সদর দফতরের বাইরে রাহুল গান্ধী সহ যেসব কংগ্রেস নেতারা বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। #রাহুল গান্ধী গ্রেফতার