মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️

মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️

647
863 পোস্ট
386.2K জন দেখলো
মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️

Please install app to see this post.

"Meditation" শরীর ও মন উভয়ই ভালো রাখার মোক্ষম দাওয়াই। এবার বলো Meditation-কে বাংলায় কি বলে? #মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️

Please install app to see this post.

"রাগ, শরীরের জন্যে হানিকারক" - রাগ নিয়ন্ত্রণ করতে আমাদের কি করণীয়? #মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️
good ni8 friends #মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️ #শুভ রাত্রি 🌙
#মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️
#মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️
riya #মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️
আমি কি উত্তরাধিকার সূত্রে কোনও মানসিক অসুখ বহন করতে পারি?একটা বিষয় আমাদের সবারই কম-বেশি জানা যে, এমন কিছু অসুখ রয়েছে, যেমন- হার্ট বা হৃদ্‌যন্ত্রের সমস্যা, ডায়াবেটিস বা মধুমেহ রোগ এবং রক্তচাপের (হাইপারটেনশন) সমস্যা, যেগুলি আমরা মূলত উত্তরাধিকার সূত্রে শরীরে বহন করি। ঠিক একইভাবে, কারও পরিবারে যদি কোনও মানসিক অসুস্থতার ইতিহাস থাকে, তাহলে সেই পরিবারের কোনও না কোনও সদস্যের মধ্যে প্রজন্মগতভাবে মানসিক রোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবনতা থাকে। যদি স্বামী বা স্ত্রী মানসিক কোনও অসুখে আক্রান্ত থাকেন, তাহলে তাদের ছেলে-মেয়েদের মধ্যেও মানসিক রোগ হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। আর এ বিষয়টি আমাদের কাছে যথেষ্ঠ চিন্তার কারণ।যদিও মানসিক রোগ পরিবারের বিভিন্ন সদস্যের মধ্যে ঘোরাফেরা করতে পারে, তবে গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, অধিকাংশ মানুষ, যারা কোনও মানসিক রোগের শিকার হয়েছে, কিন্তু তাদের আত্মীয়স্বজনের মধ্যে কোনও মানসিক সমস্যা নেই।''জিনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা গয়েছে যে, শুধুমাত্র কোনও একটা জিনের কারণেই কেউ কোনও মানসিক অসুখে আক্রান্ত হয় না। বিভিন্ন ক্রোমোজোম বিশিষ্ট  জিনের মিশ্রণের ফলে মানুষের মধ্যে উত্তরাধিকার সূত্রে মানসিক অসুখ বহন করার  ঝুঁকি থাকে। #মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️
মনরোগবিদ্যার জগতে গত একশো বছরে গুরুত্বপূর্ণ অগ্রগতি হয়েছে। অসংখ্য বৈজ্ঞানিক এবং আচরণগত গবেষণার দ্বারা বিভিন্ন মানসিক রোগের কারণ এবং চিকিৎসার প্রয়োজনীয়তা বোঝা গিয়েছে। একটি মানসিক রোগীর উপসর্গ দেখে চিকিৎসক বলে দিতে পারেন তিনি কি ধরনের মানসিক রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। আমাদের মস্তিষ্কের কোন অংশ কোন রোগের জন্যে দায়ী তাও আমরা এখন সহজে গবেষণার দ্বারা জানতে পারি। বিশ্ব জুড়ে প্রধানত দুটি পদ্ধতিতে বিভিন্ন মানসিক রোগ শনাক্ত করা হয় - চ্যাপ্টার ৫ অফ ইন্টারন্যাশনাল ক্লাসইফিকাশন অফ ডিসিস্‌ (ICD 10) ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন দ্বারা প্রচারিত, এবং ডায়াগনস্টিক অ্যান্ড স্ট্যাটিস্টিকাল মানুয়াল অফ মেন্টাল ডিস্‌অর্ডার (DSM-5), আমেরিকান সাইকিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশান দ্বারা প্রচারিত। এখন অব্দি ২৫০-এরও বেশী সংখ্যক মানসিক রোগ চিহ্নিত করা সম্ভব হয়েছে।মানসিক রোগকে সহজভাবে বোঝার জন্য এই অংশটিকে বিশদে ভাগ করা হয়েছে।  যে তিনটি মানসিক রোগ সচরাচর বেশিরভাগ মানসিক রোগীর মধ্যে দেখা যায় তা হল- ডিপ্রেশন বা অবসাদ জড়িত সমস্যা, অ্যাংজাইটি বা উদ্বিগ্নতা জড়িত সমস্যা, এবং শৈশবে ও বার্ধক্যে হওয়া মানসিক সমস্যা।প্রচুর গবেষণা এবং মনোরোগ বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলচনা করার পর, এই অংশের সব তথ্যগুলি হোয়াইট সোয়ানের সদস্যরা লিখেছেন। আমরা চেষ্টা করেছি বিভিন্ন মানসিক রোগকে সহজভাবে বুঝতে এবং সকলের সামনে তুলে ধরতে। রোগীদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার মাধ্যমে এবং বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলে, এইসব মানসিক রোগের বিবরণ সহজ ভাষায় বোঝানো হয়েছে। এই অংশটি নিজের মানসিক রোগ বিচার করার জন্যে নয়, বিভিন্ন ধরনের মানসিক রোগের ব্যাপারে ভালোভাবে জানার উপায়। যে কোন শারীরিক রোগের মত, মানসিক রোগও যত তাড়াতাড়ি ধরা পরবে তত সেরে ওঠার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে। আরো বিসদে জানার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে, ‘মানসিক স্বাস্থ্যকে বোঝা’ অংশটি পড়ে আপনি কাউকে সাহায্য করতে পারেন। #মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️
. #মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️
মানসিক স্বাস্থ্যের বিকাশ বা মানসিক সমস্যাগুলির সমাধানে শারীরিক সুস্থতা এবং সতেজতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা গ্রহণ করে। #মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️
#মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️
#মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার গুরুত্ব👩🏻‍⚕️ #CR7lover