সোমনাথ চ্যাটার্জী

সোমনাথ চ্যাটার্জী

সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় : সিপিএমের অন্যায়ের উদাহরণ। ১৩ই আগস্ট ২০১৮: বাংলার রাজনৈতিক বেক্তিত্ব তথা প্রাক্তন লোকসভার স্পিকার, প্রথম বাঙালি স্পিকারও বলতে পারেন, সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় ৮৯ বছর বয়সে আজ শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন। তাঁকে শ্রদ্ধা জানাই। তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করি। দীর্ঘ দিন দলে থাকলেও ওনাকে সিপিএম দল থেকে বের করে দিয়েছিল মূলত অবাঙালি নেতাদের কথাতেই। বাংলার সিপিএমের নেতারা এ অন্যায় চুপ করে দেখেছে কিছু বলেনি। আজ সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের মৃত্যুর খবর পেয়েই হ্যাংলার মতো সিপিএমের বেহায়া নেতৃত্ব তাঁর মরদেহের পাশে এসে হাজির হয়েছিল টিভিতে ছবি তোলার জন্য। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে শেষ শ্রদ্ধার ভার নিয়ে সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের মরদেহ হাইজ্যাক না করলে ওরা আরো বেহায়াপনা করতো। সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের মেয়ে আপত্তি না করলে মূর্খের দল লাল পতাকা নিয়ে হাজির হতেন। আসলে দলটাই নমখারামের, এই সিপিএমকে কতবার জিতিয়েছেন সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় তাকেই একেবারে অন্যায় ভাবে দল থেকে বের করে দেওয়া হয়। মনে রাখবেন ১০ বারের বিধায়ক তিনি আর তাকেই সামান্য কারণে বহিষ্কার। কারা করেছিলেন বহিস্কার? সীতারাম ইয়েচুরি আর প্রকাশ করাটের মতো চক্রান্তকারীরা! যাদের জ্ঞান আর যোগ্যতা সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের নখের সমানও নয় তারা! ওনার মেয়ে অনুশীলাও স্বীকার করেন যে এ নিয়ে অনেক দুঃখ ছিল সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের। তার মৃত্যুর অনেক ঘন্টা কেটে যাওয়ার পর সিপিএমের তরফ থেকে দায় সারা এক বিবৃতিতে সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের নামের আগে কমরেড ব্যবহার করা হয় না। তিনি ওই দলের জন্য কি কি করেছেন তার উল্লেখ পর্যন্ত করা হয় না। এরা চাইলে সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের নাম মানুষের মন থেকে মুছে ফেলে দেবে। সোমনাথ চট্টোপাধ্যায়ের নাম ভারতের রাজনৈতিক ইতিহাসের এক উজ্জ্বল নাম। তাঁর কথা যতবার আলোচিত হবে সিপিএমের নামে বাঙালি একবার থুতু ফেলবে।
#

সোমনাথ চ্যাটার্জী

সোমনাথ চ্যাটার্জী - Somnath Chatterjee 1929-201 - ShareChat
2.4k views
8 months ago
Share on other apps
Facebook
WhatsApp
Copy Link
Delete
Embed
I want to report this post because this post is...
Embed Post