😖JNU তে পুলিশ হামলা 😖
#😖JNU তে পুলিশ হামলা 😖 সাংবাদিক বৈঠক করে দিল্লি পুলিশের SIT-র প্রধান জয় তিরকে এবং জনসংযোগ আধিকারিক এম এস রনধাওয়া জানান, রবিবার JNU-তে একাধিক হামলা হয়েছিল। ঐশীদের উপর সন্ধ্যার হামলার আগে দুপুরেও হামলা চলেছিল। সেই হামলাতেই ঐশী-সহ ৯ জন অভিযুক্ত বলে জানিয়েছে দিল্লি পুলিশ। দুপুরের ওই হামলায় JNU-এর পড়ুয়া-সহ অধ্যাপকরাও আক্রান্ত হন বলে জানাচ্ছে দিল্লি পুলিশের বিশেষ তদন্তকারী দল বা SIT। রবিবার দুপুরে জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলায় সন্দেহভাজনদের নাম প্রকাশ করেছে দিল্লি পুলিশ। তাঁরা হলেন, চুনচুন কুমার, পঙ্কজ মিশ্র, ঐশী ঘোষ, ওয়াসকর বিজয়, সুচেতা তালুকদার, প্রিয়া রঞ্জন, দোলন সাওয়ান্ত, যোগেন্দ্র ভরদ্বাজ এবং বিকাশ প্যাটেল । এদের মধ্যে ঐশী ঘোষ বাম নিয়ন্ত্রিত JNU ছাত্র সংসদের সভাপতি এবং যোগেন্দ্র ভরদ্বাজ এবং বিকাশ প্যাটেল ABVP-র সদস্য। সন্দেহভাজনদের কাউকেই আটক করা হয়নি। তবে শীঘ্রই তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে বলে জানা গেছে। পুলিশের তরফে আরও জানানো হয়েছে, ওইদিন (রবিবার) দুপুরে JNU-এর সার্ভার রুমে ভাঙচুর চালান ঐশী-সহ বাম সংগঠনের পড়ুয়ারা। বর্ধিত ফি-র বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতেই এবং অনলাইন রেজিস্ট্রেশন রুখতেই এই হামলা হয়েছিল। এরপরই সন্ধ্যায় JNU-এর হস্টেলে হামলা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ, যে হামলায় আক্রান্ত পড়ুয়া-অধ্যাপক-সহ মোট ৩৪ জন। তবে সন্ধ্যার হামলায় জড়িতদের এখনও 'চিহ্নিত' করা সম্ভব হয়নি বলে স্বীকার করেছে দিল্লি পুলিশ। পাশাপাশি ওই হামলার CCTV ফুটেজ 'পাওয়া যায়নি' বলেও আজ সাংবাদিক বৈঠকে জানানো হয়েছে। প্রসঙ্গত, এই হামলায় গেরুয়া শিবিরের অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের সদস্যরা জড়িত বলে অভিযোগ উঠছে। তবে দিল্লি পুলিশের জনসংযোগ আধিকারিক এম এস রনধাওয়া আজ বলেন, 'JNU-এর ঘটনা নিয়ে অনেক বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে।' এদিকে, দিল্লি পুলিশের অভিযোগকে গুরুত্ব দিতে নারাজ ঐশী ঘোষ। JNU-এর ছাত্র সংসদের সভাপতি আজ বলেন, ‘আমরা কোনও ভুল করিনি। আর দিল্লি পুলিশকে আমরা ভয় পাই না। আইনের সঙ্গে আছি। আমাদের আন্দোলন শান্তিপূর্ণ ও গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে চলবে।’
#

😖JNU তে পুলিশ হামলা 😖

😖JNU তে পুলিশ হামলা 😖 - ShareChat
186 জন দেখলো
1 মাস আগে
#😖JNU তে হামলা 😖 গত রবিবার মুখোশধারী কিছু দুষ্কৃতির তান্ডবে রক্তাক্ত হয়েছিল দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর। মাথা ফেটেছিল ছাত্র সংসদের সভাপতি ঐশী ঘোষ। বহু শিক্ষার্থীর পাশাপাশি আহত হয়েছিলেন অধ‍্যাপক-অধ‍্যাপিকারা। সেই ঘটনায় অভিযুক্তদের বহু ভিডিও ও ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হলেও পুলিশ এখনো একজন অভিযুক্তকেও গ্রেফতার করতে পারেনি। উল্টে আহত ঐশী ঘোষ ও আরও ১৯ জন পড়ুয়ার বিরুদ্ধে FIR দায়ের করেছে দিল্লি পুলিশ! পুলিশের পক্ষ থেকে দায়ের করা FIR-এ বলা হয়েছে, গত শনিবার অর্থাৎ জেএনইউতে দুষ্কৃতিদের তান্ডবের একদিন আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্ভার রুম ভাঙচুর করেছে। এমনকি এর আগের দিনেও ওই রুমে ভাঙচুর চালায় তারা। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ঐশী ঘোষ ও বাকি ১৯ জন পড়ুয়ার বিরুদ্ধে ওই অভিযোগ দায়ের করেছে। গত ৩রা ও ৪ঠা জানুয়ারি দিল্লি পুলিশ এই FIR দায়ের করেছে। প্রথম FIR দায়ের করার পর ফের তান্ডব চালানোয় দ্বিতীয় FIR দায়ের করেছে পুলিশ। FIR-এ আরো উল্লেখ রয়েছে, ঐশী ঘোষ সহ বাকি অভিযুক্তরা নিরাপত্তারক্ষীদের ওপর হামলা চালিয়েছে। প্রযুক্তি কর্মীদের ভয় দেখিয়েছে। জেএনইউ ছাত্র সংসদের অভিযোগ, রবিবারের তান্ডবের সাথে বিজেপির ছাত্র সংগঠন এভিবিপি জড়িত। প্রায় ৩৪ জন আহত হয়েছে সেই ঘটনায়।
#

😖JNU তে হামলা 😖

😖JNU তে হামলা 😖 - ShareChat
186 জন দেখলো
1 মাস আগে
আর কোনও পোস্ট নেই
অন্য কোথাও শেয়ার করুন
Facebook
WhatsApp
লিংক কপি করুন
মুছে ফেলুন
Embed
আমি এই পোস্ট এর বিরুদ্ধে, কারণ...
Embed Post